আমি বলেছি, কেন এমন করছেন?

প্রতিনিধি:রফিকুল ইসলাম জসিম সড়ক পরিবহন আইনের কয়েকটি ধারা সংশোধনসহ ৮ দফা দাবিতে রোববার সকাল থেকে সারা দেশে ৪৮ ঘণ্টার পরিবহন ধর্মঘট শুরু করেছে শ্রমিকরা।

শ্রমিকদের ৪৮ ঘণ্টার ধর্মঘটের প্রথম দিন রাজধানীতে বিভিন্ন প্রাইভেটকারের চালক ও যাত্রীদের পোড়া মবিল ও কালি মেখে দেয় তারা। এরই ধারাবাহিকতায় নারায়ণগঞ্জ সরকারি মহিলা কলেজের ছাত্রীদের বহন করা বাসে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করার পাশাপাশি চালক ও ছাত্রীদের গায়ে পোড়া মবিল মেখে দেয় আন্দোলনরত পরিবহন শ্রমিকরা।

রোববার দুপুরে নারায়ণগঞ্জের সিদ্দিরগঞ্জ উপজেলার শিমরাইল এলাকায় একটি পাম্পের কাছে এ ঘটনা ঘটে। পরে বাসটি সেখানে থামিয়ে দিয়ে আর যেতে দেয়নি তারা। ছাত্রীদের গায়ে পোড়া মবিল মাখানোর একটি ছবি ইতোমধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। ওই ছাত্রী নারায়ণগঞ্জ সরকারি মহিলা কলেজের শিক্ষার্থী। ঘটনার সময় ওই ছাত্রীর কয়েক বান্ধবীকেও পোড়া মবিল মেখে দেয় শ্রমিকরা।

তারা জানান, দুপুর ১২টার দিকে সাইনবোর্ড এলাকা পার হওয়ার সময় হঠাৎ শ্রমিকরা বাসটি থামিয়ে চালককে মারধর করে ও তার মুখে শরীরে পোড়া মবিল মেখে দেয়।

ভুক্তভোগী ছাত্রী জানান, এ ঘটনার প্রতিবাদ করে আমি তাদের বলেছি, কেন এমন করছেন? এ কথা বলতে না বলতেই কয়েকজন শ্রমিক এসে আমাদের গাড়ি থেকে টেনে নামিয়ে পোড়া মবিল মেখে দেন। অামাদের অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন তারা। পরে বাসের কয়েকটি গ্লাস ভাঙচুর করে সবাইকে বাস থেকে নামিয়ে দেয়।

ওই বাসের চালক মজিবর রহমান বলেন, বাসটিতে ৩৮ জন ছাত্রী ছিল। তারা সবাই সরকারি মহিলা কলেজে অধ্যয়নরত। ছাত্রী বহনকারী বাসটি সাইনবোর্ড এলাকায় এলেই হামলা করে বাসের গ্লাস ভাঙচুর করে শ্রমিকরা। পরে ছাত্রীদের গায়ে পোড়া মবিল মাখিয়ে দেয় তারা।

নারায়ণগঞ্জ সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ বেদৌরা বিনতে হাবিবা বলেন, আমাকে চালক জানিয়েছে ঘটনাটি। সেখানে শ্রমিকরা কয়েকটি গ্লাস ভাঙচুর করেছে এবং ছাত্রীদের সঙ্গে বাজে আচরণ করেছে। তাদের গায়ে পোড়া মবিল দিয়েছে।

এদিকে, একই সময়ে সিদ্ধিরগঞ্জে কয়েকটি অ্যাম্বুলেন্সে রোগী না থাকায় পোড়া মবিল লেপে দেন শ্রমিকরা। এ সময় চালকদের সঙ্গে খারাপ আচরণ করে শ্রমিকরা।

অ্যাম্বুলেন্সের চালক আব্দুল্লাহ বলেন, রোগী আনতে যাচ্ছিলাম। রোগী আনতে গেলে তো খালিই যেতে হবে। তবে আমার কথা না শুনেই কালি ও পোড়া মবিল দিয়ে অ্যাম্বুলেন্সের বাইরের দিক ভরে দেয় শ্রমিকরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>

Shares