আইয়ুব বাচ্চুকে নিয়ে ‘জি বাংলা’র আয়োজন, ছুঁয়ে গেল বাংলাদেশ

এই আক্ষেপ অনেক পুরনো। পাশের দেশ ভারতের কোনো তারকার মৃত্যু হলে তার শোক ছুঁয়ে যায় বাংলাদেশে। কিন্তু ভারতে পরিচিত ও জনপ্রিয় হলেও এদেশের নন্দিত-গুণী মানুষের মৃত্যু নিয়ে তেমন আগ্রহ থাকে না দেশটিতে।

সেই আক্ষেপ বা ভারতের উদাসীনতা যেন ঘুচে গেল আইয়ুব বাচ্চুর মৃত্যুর মধ্য দিয়ে। গেল ১৮ অক্টোবর রূপালী গিটার ছেড়ে না ফেরার দেশে পাড়ি জমান ব্যান্ড লিজেন্ড আইয়ুব বাচ্চু। তার অকাল মৃত্যুর শোক বাংলাদেশ ছাড়িয়ে আছড়ে পড়েছিল ভারতেও। বিশেষ করে কলকাতায় বাচ্চুকে শ্রদ্ধা জানিয়েছিলেন কবীর সুমন, অনুপম রায়সহ আরও অনেক তারকারা।

ওপার বাংলার গণমাধ্যমেও ছিল আইয়ুব বাচ্চুর জন্য শোক। তবে সবকিছু ছাপিয়ে কলকাতার টিভি চ্যানেল জি বাংলা আইয়ুব বাচ্চুকে নিয়ে বিশেষ আয়োজন করে তাক লাগিয়ে দিলো। রোববার দিবাগত রাতে চ্যানেলটির জনপ্রিয় অনুষ্ঠান ‘সা-রে-গা-মা-পা-’র পর্বে দেখা গেল এই আয়োজন। আবেগঘন সেই আয়োজনে আপ্লুত আইয়ুব বাচ্চুর ভক্তরা, সিক্ত হলেন অশ্রুতে।

অনুষ্ঠানে একজন প্রতিযোগী হিসেবে অংশ নিচ্ছেন বাংলাদেশের ছেলে নোবেল। তিনি ব্যান্ডের গানে সবার নজর কেড়েছেন। বিশেষ করে আইয়ুব বাচ্চুর বেশকিছু গান দিয়ে পেয়েছেন জনপ্রিয়তা। তাকে ঘিরে আইয়ুব বাচ্চুর স্মরণে বিশেষ আয়োজনে অংশ নিয়েছিলেন অনুপম রায় ও সা-রে-গা-মা-পা-’র দুই বিচারক শ্রীকান্ত আচার্য এবং শান্তনু মৈত্র।

উপস্থাপক যিশু সেনগুপ্ত আইয়ুব বাচ্চুকে নিয়ে যখন বলছিলেন মঞ্চে তখন বিদায়-বিষাদের সুর। তার বলা শেষেই করুণ সুরে বেহালায় ভেসে আসে বাচ্চুর জনপ্রিয় ‘সেই তুমি কেন এত অচেনা হলে’ গানটি। এরপর গানটির কয়েক লাইন শোনান অনুপম রায়।

এ সময় গিটার হাতে দেখা যায় সা-রে-গা-মা-পা-’র বিচারক শান্তনুকে আর ড্রামস বাজাচ্ছিলেন উপস্থাপক যিশু। হঠাৎ সুর বদলে গেল ‘রূপালী গিটার’ গানে। গানটি এককভাবে গাইলেন নোবেল। তার করুণ সুরে গাওয়া ‘রূপালী গিটার’ ছুঁয়ে গেল দুই বাংলার দর্শকের মন।

সবশেষে অনুপম রায় ও নোবেলের সঙ্গে অনুষ্ঠানের সকল প্রতিযোগী, বিচারক গলা ছেড়ে গাইলেন ‘সেই তুমি’ গানটি। গিটারের তালে তালে একযোগে প্রায় ত্রিশজন শিল্পীর কণ্ঠে বেজে ওঠা গানটি চোখ ভিজিয়ে দিলো দর্শকের, আইয়ুন বাচ্চুর ভক্তদের। এমনটাই জানাচ্ছেন জি বাংলার ফেসবুক পেজে পোস্টে করা ৫ মিনিটের ওই বিশেষ আয়োজনের ভিডিওটির মন্তব্যের ঘরে।

রাত ১২টার পর পোস্ট করে সেই ভিডিওটি এরইমধ্যে ভাইরাল হয়। সেখানে তানিন চৌধুরী নামে এক বাংলাদেশি কমেন্ট করেছেন, ‘সত্যিই চোখের জল ধরে রাখতে পারিনি এই আয়োজন দেখে। জি বাংলাকে ধন্যবাদ আইয়ুব বাচ্চুকে সম্মান করার জন্য।’

পলাশ দাস নামে একজনের মন্তব্য ছিল, ‘ভারতের এমন কোন শিল্পী, গুণীজন নেই যাকে বাংলাদেশের মানুষ বিভিন্নভাবে শ্রদ্ধা জানায় না। আজ সা-রে-গা-মা-পা-’র মাধ্যমে জি বাংলা যেভাবে আইয়ুব বাচ্চুকে শ্রদ্ধা জানালো তাতে আমি আপ্লুত। আস্তে আস্তে ওরাও শিখছে গুণীজনকে সম্মান করতে।’

জান্নাতুল ফেরদৌস হান্না নামে একজন বাংলাদেশি লিখেছেন, ‘দুই বাংলা এক হয়ে গেলো তার সুরে।এতো মানুষের ভিড়েও তার শূন্যতা অপূরণীয়। তবুও তিনি বেঁচে থাকবেন নোবেলদের সুরের মাঝে। সা-রে-গা-মা-পা-‘কে ধন্যবাদ এমন ট্রিবিউটের জন্য।’

তাপস সরকার রাহুল লিখেছেন, ‘একজন বাংলাদেশি হিসেবে আপনাদের অনেক ধন্যবাদ। কেন জানি চোখের কোণে জল জমেছে…।’

শুধু তাই নয়, এই ভিডিওটি শেয়ার করছেন বাংলাদেশের সংগীতাঙ্গনের অনেক মানুষ। তারা কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন জি বাংলাকে। শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন বাংলাদেশের নোবেলকে।

প্রসঙ্গত, কলকাতায় আশি-নব্বই দশক থেকেই ব্যাপক জনপ্রিয় ছিলেন আইয়ুব বাচ্চু ও তার ব্যান্ড এলআরবি। বহুবার তিনি কলকাতাসহ পশ্চিমবঙ্গে কনসার্টে শ্রোতা মাতিয়েছেন। তার পরামর্শ, ছায়াতেই কলকাতায় ব্যান্ডের চর্চা বেড়েছে, রুপম ইসলাম গড়ে তুলেছেন ফসিলের মতো জনপ্রিয় ব্যান্ড।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>

Shares