দু’টি আসনে লড়বেন শেখ হাসিনা

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে দলীয় মনোনয়নপত্রের ফরম সংগ্রহ করেছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আসন্ন এ নির্বাচনে গোপালগঞ্জের টুঙ্গীপাড়া এলাকার গোপালগঞ্জ-৩ ও রংপুরের পীরগঞ্জের রংপুর-৬ আসন থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন তিনি।

শুক্রবার (৯ নভেম্বর) সকালে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয় থেকে এই দুই আসন থেকে নির্বাচন করার জন্য শেখ হাসিনার নামে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করা হয়। দলীয় প্রধান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ফরম সংগ্রহের মধ্য দিয়ে শুরু হয় আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়নপত্রের ফরম বিতরণ কার্যক্রম।

গোপালগঞ্জ-৩ আসনে শেখ হাসিনার পক্ষে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেন গোপালগঞ্জের বাসিন্দা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য কাজী আকরাম উদ্দিন, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক শেখ আবদুল্লাহসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতারা।

এ সময় আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, আব্দুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ বাহাউদ্দিন নাছিম, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, দফতর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আব্দুস সবুর, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, বন ও পরিবেশ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, উপ-দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, কার্যনির্বাহী সদস্য এস এম কামাল হোসেন, রেমন্ড আরেংসহ অন্যান্য নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে পীরগঞ্জের রংপুর-৬ আসনে শেখ হাসিনা ছাড়াও একই আসন থেকে স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর পক্ষে মনোনয়নপত্রের ফরম সংগ্রহ করা হয়েছে। স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর পক্ষে ফরম সংগ্রহ করেন চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজ ও হুইপ আতিকুর রহমান আতিক। এ সময়ও ওবায়দুল কাদেরসহ আওয়ামী লীগ নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

২০০৮ সালের নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এই দুটি আসন থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। পরবর্তীতে রংপুরের পীরগঞ্জ আসনটি ছেড়ে দেন ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীকে। শিরীন শারমিন চৌধুরী উপ-নির্বাচনের রংপুর-৬ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে প্রথমে নারী ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ও পরবর্তীতে জাতীয় সংসদের স্পিকার হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন।

২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করলেও রংপুরের পীরগঞ্জের আসনটি থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেননি শেখ হাসিনা।

আওয়ামী লীগ সূত্রে জানা গেছে, গোপালগঞ্জের টুঙ্গীপাড়া ও রংপুর পীরগঞ্জের আসন থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করা হলেও অন্য যেকোনো আসন থেকে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করাতে পারেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>

Shares