যৌনকর্মীর কষ্টের কথা শুনে বিল গেটসের চোখে পানি

ভারতে যৌনকর্মীদের জন্য কাজ করে গেটস ফাউন্ডেশন। আর এই কাজেই ভারতে বেশ কয়েকবার গিয়েছেন বিল গেটস। মূলত এইডস প্রতিরোধ কর্মসূচিতে আসেন তিনি। এবার এমনই এক কর্মসূচিতে গিয়ে এক যৌনকর্মীর গল্প শুনে কেঁদেছেন তিনি।

ওই যৌনদাসীর মেয়ে আত্মহত্যা করেছিল। তার মেয়ের আত্মহত্যার কারণ ছিলো মেয়েটির স্কুলের বন্ধুরা তাকে বিভিন্নভাবে হেনস্তা করতো। এছাড়া তাকে একঘরে করে ফেলা হয়েছিল। সব মিলিয়ে শেষ পর্যন্ত ওই মেয়েটি আত্মহত্যা করে। সম্প্রতি প্রকাশিত একটি বইয়ে এসব তথ্য উঠে এসেছে।

গেটস ফাউন্ডেশনের এইচআইভি এইডস প্রতিরোধ কর্মসূচির প্রধান অশোক আলেকজেন্ডার বইটি লিখেছেন। বইটির নাম ‘অ্যা স্ট্রেঞ্জার ট্রুথ: লেসন্স ইন লাভ, লিডারশিপ, অ্যান্ড কারেজ ফ্রম ইন্ডিয়া’জ সেক্স ওয়ার্কার্স’।

এই বইয়ে ভারতের যৌনকর্মীদের জীবনযাপন পদ্ধতি তুলে ধরেছেন অশোক। পাশাপাশি আরও বেশকিছু বিষয় আলোচিত হয়েছে এতে। অশোক আলেকজান্ডার লিখেছেন, ভারত সফরের সময় বিল গেটস বাইরের কোন বিষয়ে খুব একটা নজর দিতেন না। শুধু যৌনকর্মীদের সমস্যার কথা শুনতেন। তাদের বাড়ি গিয়ে খুব মনোযোগ দিয়ে শুনতেন সেগুলো।

২০০০ সালে ভারতে আসার পর এক যৌনকর্মী বিল গেটসকে বলেন, তিনি মেয়ের কাছে লুকিয়ে রেখেছেন তার আয়ের কথা। মেয়ে স্কুলে পড়ত। কিন্তু তার সহপাঠীরা একদিন জেনে যায় সে যৌনকর্মীর মেয়ে। এরপর থেকে প্রতিদিন স্কুলে তাকে নিয়ে ঠাট্টা করতো সহপাঠীরা। কেউ তাকে খেলতে নিতো না। একদিন ওই যৌনকর্মী বাড়িতে ফিরে দেখেন, মেয়ে গলায় দড়ি দিয়ে ঝুলছে। সে চিঠিতে লিখে গেছে, সহপাঠীদের বিদ্রুপ আর সহ্য হচ্ছে না।

অশোক আলেকজান্ডার লিখেছেন, ওই যৌনকর্মী যখন মেয়ের গল্প বলছে, তখন আমি দেখলাম, বিল গেটস মাথা নিচু করে নিঃশব্দে কাঁদছেন। ভারতের যৌনকর্মীদের জীবন নিয়ে এই রকমই কিছু মর্মান্তিক সত্যি ঘটনা ফুটে উঠেছে এই বইতে।

সূত্র: আনন্দবাজার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>

Shares