প্রস্তুতি ম্যাচে তামিমের দারুণ শতক

ওয়েস্ট ইন্ডিজের ৩৩২ রানের পাহাড়সম টার্গেটে ব্যাট করতে নেমেই দুর্দান্ত শুরু এনে দিলেন টাইগার ড্যাশিং ওপেনার তামিম ইকবাল। ইনজুরির পর মাঠে ফিরেই রাজসিক প্রত্যাবর্তন। দুই মাসেরও বেশি সময় পর মাঠে নেমে সেঞ্চুরির দেখাও পেয়েছেন তিনি।

ইমরুল কায়েসের সঙ্গে মাত্র ৯ ওভারে ৮১ রানের জুটি গড়েন তামিম। ৩৪ বলে হাফসেঞ্চুরির পর শতক ছুঁয়েছেন তিনি ৭০ বল খেলে। ৭৩ বলে ১৩ চার ও ৪ ছয়ে ১০৭ রানে আউট হন এই ওপেনার। ২৩তম ওভারের পঞ্চম বলে স্টাম্পিং হন তামিম। দলীয় ১৯৫ রানে তিনি মাঠ ছাড়েন রোস্টন চেজের শিকার হয়ে। সৌম্য সরকারের সঙ্গে ১১৪ রানের জুটি ছিল তার। এর আগে ইমরুল ২৫ বলে ৫ চারে ২৭ রানে আউট হন।

বিকেএসপির তিন নম্বর মাঠে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে উড়ন্ত সূচনা হয় উইন্ডিজের। কিয়েরন পাওয়েল ও শাই হোপ একশ ছাড়ানো জুটি গড়েন। পাওয়েলকে ৪৩ রানে ফিরিয়ে এই জুটি ভাঙেন নাজমুল ইসলাম। এরপর ব্রাভোর সাথে ৫৮ রানের জুটি গড়েন হোপ। এরপর ছোটখাটো বিপর্যয়ের মুখোমুখি হয় ক্যারিবিয়ানরা। ২৪ রানে ফেরেন ব্রাভো। ৮৪ বলে ৬ চার ও ৩ ছয়ে ৮১ রানের সেরা ইনিংস খেলেন হোপ।

এরপর ২১৫ রানেই ৬ উইকেট হারিয়েই ঘুরে দাঁড়ায় সফরকারীরা। রোস্টন চেজ ও ফ্যাবিয়ান অ্যালেনের জুটিতে বড় সংগ্রহ করে তারা। অ্যালেন ফিফটি পাননি ২ রানের জন্য। রুবেলের বলে এলবিডব্লিউ হওয়ার আগে ৩২ বলে ৮ চার ও এক ছক্কায় ৪৮ রান করেন তিনি। চেজ শেষ পর্যন্ত ৫১ বলে ৬ চার ও এক ছক্কায় ৬৫ রানে অপরাজিত ছিলেন। ৪৭তম ওভারে অ্যালেনকে ফিরিয়ে এ জুটি ভাঙেন রুবেল হোসেন। ৩২ বলে ৮ চার ও ১ ছয়ে ৪৮ রান করেন উইন্ডিজ ব্যাটসম্যান।

মাশরাফির বোলিং প্রস্তুতি হয়েছে ৮ ওভারে ১ মেডেনসহ ৩৭ রান দিয়ে একটি উইকেট নিয়ে। তার সঙ্গে ওয়ানডে দলে জায়গা পাওয়া রুবেল ও নাজমুল বিসিবির পক্ষে এদিন দুটি করে উইকেট নেন। এছাড়া দুই উইকেট পান মেহেদী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>

Shares