এল-ক্লাসিকোর রোমাঞ্চ

হঠাৎই যদি আপনি সোনার হরিণের খোঁজে বেড়িয়ে পড়েন,তবে শত চেষ্টা করেও তা কখনই পাবেন না। ধৈর্য,চেষ্টা আর সৌভাগ্যের একটুখানি পরশ পেলে সোনার হরিণতুল্য অন্য অনেক কিছুই পেতে পারেন। কিন্তু সোনার ওই ঘোড়ার ডিমের মতোই অসম্ভব বস্তু। কী খটকা লাগছে? রিয়াল-বার্সার এল-ক্লাসিকোর গল্প শুনতে এসে কিসব সোনার হরিণ আর ঘোড়ার ডিমের চক্করে পড়লেন!এগুলোর সাথে এল-ক্লাসিকোর সম্পর্ক কি? সম্পর্ক আছে বৈকি! ক্লাব ফুটবলে এল-ক্লাসিকো সোনার হরিণ কিংবা ঘোড়ার ডিমের মতো অসম্ভব বস্তু না হলেও কোন ডাল-ভাত ব্যাপার কিন্তু না। কেবল ফুটবল সমর্থকরাই জানেন এল-ক্লাসিকো কত বড় ফুটবল উত্তেজনার নাম,এর উম্মাদনা কত দূর পর্যন্ত ছড়ায় আর এক-একটি এল-ক্লাসিকো কত প্রতীক্ষিত কোন ব্যাপার। তবে নিয়তি এখন অবশ্য ফুটবলপ্রেমীদেরই পক্ষে।অন্তত বাংলাদেশী ফুটবলপ্রেমীদের জন্য দুই রাতের ব্যবধানে আবারও শুধুমাত্র রিয়াল-বার্সা ক্লাসিকোর বরাত দিয়ে রাত জাগার উপলক্ষ্য চলে এসেছে।

গত দুই দিন আগে বাংলাদেশ সময় রাত দুইটায় সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে কোপা দেল রে সেমিফাইনালের দ্বিতীয় লেগের ম্যাচের পরও আজ দিবাগত রাত দেড়টায় একই ভেন্যুতে আবারও ফুটবল যুদ্ধে নামছে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল-বার্সা। এটি অবশ্য লা-লীগা ম্যাচ।সর্বশেষ ক্লাসিকো অবশ্য একেবারে দুঃস্বপ্ন মনে ভুলে যেতে চাইবেন রামোসরা। কিন্তু মেসিবাহিনী!প্রতিপক্ষের দুর্গ জয় করা ৩-০ গোলে জয়ের সুখস্মৃতি নিয়ে আবারও মাঠে নামবে। শুধুমাত্র সর্বশেষ একটিমাত্র ম্যাচের কথা বলছি কেন,রিয়ালের বেদনার গল্পটা আরোও বড়। শেষ পাঁচ এল-ক্লাসিকোর কোনটাতেই জয়ের মুখ দর্শন হয়নি গ্যালাকটিকোদের।পাঁচের ম্যাচের তিনটিতেই বার্সার জয় আর দুটি ম্যাচ ড্রয়ে ইতি হয়েছে।

শেষ পাঁচ ম্যাচের চিত্র কিন্তু পুরো এল-ক্লাসিকো ইতিহাসের স্বরূপ নয়। এ যাবৎকালের মোট ৪২০টি এল-ক্লাসিকোতে রিয়াল মাদ্রিদ ও বার্সেলোনার জয়ের সংখ্যা একই,ওই ৯৫। আর বাকি ম্যাচগুলোর ফলাফল সন্দেহাতীতভাবে ড্র। জয়ের সংখ্যা সমান হলেও রিয়াল মাদ্রিদ কিন্তু গোলের দিক থেকে বার্সার চেয়ে এগিয়ে। বার্সেলোনার ৩৯৭ গোলের স্থলে রিয়ালের জন্য সংখ্যাটা ৪০২। তবে এল-ক্লাসিকোয় এই সংখ্যাগুলো কেবল কোন পরিসংখ্যান মাত্র। এই সংখ্যাগুলো এল-ক্লাসিকোর মাঠের ফুটবলশৈলী,উত্তেজনা কিংবা গ্যালারির উম্মাদনার কাছে তুচ্ছ। তাই রিয়াল-বার্সা দ্বৈরথে সবকিছু ছাপিয়ে বার্নাব্যুতে যে আজ রাতে মাঠের লড়াইটা মুখ্য হয়ে উঠবে তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>

Shares