টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ রোহিঙ্গা নিহত

কক্সবাজারের টেকনাফের হ্নীলার লেদা রোহিঙ্গা ক্যাম্প এলাকায় পুলিশের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই রোহিঙ্গা মাদককারবারি নিহত হয়েছেন। রোববার সন্ধ্যায় আটক রোহিঙ্গাদের নিয়ে রাত ২টার দিকে তাদের ডেরায় ইয়াবা ও অস্ত্র উদ্ধারে গেলে বন্দুকযুদ্ধের ঘটনায় তারা মারা যান বলে জানিয়েছেন টেকনাফ থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ ।

বন্দুকযুদ্ধে দুই পুলিশ কর্মকর্তা আহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল হতে ২ হাজার ২০০টি ইয়াবা, ২টি এলজি, ৭ রাউন্ড তাজা কার্তুজ ও সাড়ে ছয় লাখ টাকা জব্দ করেছে পুলিশ।

নিহতরা হলেন, কক্সবাজারের টেকনাফের হ্নীলার নয়াপাড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বাঁচা মিয়ার ছেলে মুহাম্মদ আলম (৩৫) ও জাদিমুড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পের আলী হোসেনের ছেলে মুহাম্মদ রফিক (২০)।

টেকনাফ মডেল থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ জানান, ইয়াবা কারবারি রোহিঙ্গা আলম ও রফিককে রোববার সন্ধ্যায় আটক করে পুলিশ। তাদের স্বীকারোক্তি মতে রাত ২টার দিকে লেদা ক্যাম্প এলাকায় ইয়াবা ও অস্ত্র উদ্ধারে যায় পুলিশ। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে আটকদের সহযোগী ইয়াবা কারবারিরা গুলিবর্ষণ করে। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়। প্রায় ৪০ রাউন্ড গুলি চালানোর পর ইয়াবাকারবারিরা পিছু হটে। তখন ঘটনাস্থলে তল্লাশি চালিয়ে রফিক ও আলমের গুলিবিদ্ধ দেহ পাওয়া যায়। আহত হন এসআই সাব্বির ও এসআই বাবুল।

তিনি আরো জানান, ঘটনাস্থল হতে ২ হাজার ২০০ ইয়াবা, ২টি দেশীয় তৈরি এলজি, ৭ রাউন্ড তাজা কার্তুজ ও মাদক বিক্রির ৬ লাখ ৫৬ হাজার ২১০ টাকা পাওয়া যায়।

গুলিবিদ্ধ দেহগুলো উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। পরে ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহগুলো কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। বন্দুকযুদ্ধের ঘটনায় মাদক ও অস্ত্র আইনে পৃথক মামলা হচ্ছে বলে উল্লেখ করেন ওসি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>

Shares